আমার দিকে আবর্জনা ছোড়া বন্ধ হোক অনুষ্কা

আমার দিকে আবর্জনা ছোড়া বন্ধ হোক অনুষ্কা

আমার দিকে আবর্জনা ছোড়া বন্ধ হোক অনুষ্কা : বলিউড ফিল্ম দুনিয়ায় অর্থ-যশ-খ্যাতি সবই পাওয়া যায়। তবে এগুলি পেতে গেলে খুবই কষ্ট করতে হয়। খুব সহজে এই অর্থ বা খ্যাতি মেলে না। বলিউডে প্রবেশ করার পর সেখানে জায়গা টিকিয়ে রাখার লড়াইটা আরও কঠিন তারকাদের নিজেদের মধ্যে ঠোকাঠুকিও হয়। কখনও কখনও আড়ালে-আবডালে আবার কখনও কখনও জনসমক্ষেই একে অপরের দিকে আঙুল তুলে তরজায় জড়ান তারকারা

বলিউডে তারকাদের মধ্যে এই কলহের নিদর্শন অনেক আগে থেকেই পাওয়া যায়। রাকেশ খন্না-অমিতাভ বচ্চন থেকে শুরু করে হালের শাহরুখ-সলমন বা করিনা-বিপাশা— তালিকাটা বেশ লম্বা।

জানেন কি নিজেদের মধ্যে ঝামেলায় জড়িয়েছিলেন রণবীর সিংহের সহধর্মিণী তথা বলিউড তারকা দীপিকা পাদুকোন এবং রণবীরের প্রাক্তন প্রেমিকা অনুষ্কা শর্মা। তবে তাঁদের সম্পর্কে চিড় ধরার কারণ কিন্তু রণবীর নন। বরং এক বহুজাতিক সংস্থার বিজ্ঞাপণের মুখ হওয়া নিয়ে তাঁদের মধ্যে মনোমালিন্য দেখা যায়। তবে‌ তা নিয়ে দীপিকা মুখে কুলুপ আঁটলেও জনসমক্ষে সরব হয়েছিলেন বিরাট-পত্নী।

শোনা গিয়েছিল যে, অনুষ্কা নাকি একটি বহুজাতিক সংস্থার মুখ হতে নিজের পারিশ্রমিক দীপিকার থেকে কমিয়ে দেন। আর তার ফলে এই সংস্থা দীপিকার বদলে অনুষ্কাকেই মুখ হিসেবে মেনে নেয়। যদিও আগে দীপিকাকেই এই বহুজাতিক সংস্থার মুখ হওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল সংস্থার তরফে।

অনুষ্কার বিরুদ্ধে পারিশ্রমিক কমিয়ে দীপিকার প্রাপ্য ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ এনেছিলেন দীপিকা ঘনিষ্ঠরা। অভিযোগ ওঠার পর সরব হন অনুষ্কা। পাল্টা দীপিকা এবং তাঁর ঘনিষ্ঠদের বিরুদ্ধে তাঁকে অপমান করার অভিযোগ আনেন অনুষ্কা।

অনুষ্কা জানিয়েছিলেন, দীপিকা এবং তাঁর মধ্যে কোনও তুলনা হয় না। তাঁরা দু’জনেই ভিন্ন ধরনের ফিল্মে অভিনয় করেন বলেও তিনি জানান। পাশাপাশি দীপিকাকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, ‘‘দীপিকা আমার থেকে অনেক বেশি সিনেমায় কাজ করেছেন। তবে আমি বাছাই করা সিনেমায় অভিনয় করি। আমার কাছে প্রস্তাব আসা সব সিনেমাতেই আমি অভিনয় করি না।’’

তাঁর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ উড়িয়ে তিনি এও বলেন, ‘‘নিজের পারিশ্রমিক কমিয়ে আমার কোনও লাভ নেই। আমার কাছে পর্যাপ্ত ব্র্যান্ড আছে। তারা প্রত্যেকেই নিজেদের চুক্তির মেয়াদ বাড়িয়েছে। কোনও কোনও সংস্থা তৃতীয় বারের জন্য আমাকে সংস্থার মুখ হিসেবে বেছে নিয়েছে। আমার মনে হয় না অন্য কোনও নায়িকার সঙ্গে এমন হয়েছে। আমি সঠিক পথে চলছি বলেই হয়তো এ রকম হয়েছে।’’

পুরনো প্রসঙ্গ তুলেও দীপিকাকে এক হাত নেন অনুষ্কা। তিনি বলেন, ‘‘দীপিকার এক বন্ধু ফোন করে জানিয়েছিল যে সে ‘ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’ করছে, আমি নয়। আমি অনুরাগ কশ্যপ এবং রাজকুমার হিরানির মতো পরিচালকদের প্রথম পছন্দ। অয়ন মুখোপাধ্যায় এবং অন্যদের পছন্দ দীপিকা। আমি কখনই কাউকে টেনে নীচে নামাই না। তাই আমাকে লক্ষ্য করে কাদা ছোড়াছুড়ি বন্ধ করা হোক। আমি কারও দিকে আবর্জনা ছুড়ি না।’’

তাঁকে উপহাস করে কেউ তাঁর ভাগ্য ছিনিয়ে নিতে পারবে না বলেও তিনি মন্তব্য করেছিলেন।

জনসমক্ষে এলেও দীপিকা-অনুষ্কা বিতর্ক নিয়ে কিন্তু বিস্তর জলঘোলা হয়নি। মনে করা হয় এর সম্ভাব্য কারণ এই বিষয়ে দীপিকার নীরব থাকা।

বর্তমানে কিন্তু দুই তারকার মধ্যেই পারস্পরিক দূরত্ব অনেক কমেছে। বলি পাড়ার এই দুই সুন্দরীকেই একে অপরের সঙ্গে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখতে দেখা গিয়েছে।

দীপিকাকে সম্প্রতি ‘গেহারাঁইয়া’-তে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে। অনুষ্কাও বর্তমানে তাঁর আসন্ন সিনেমা ‘চাকদা এক্সপ্রস’ নিয়ে ব্যস্ত।

About Post Author

Leave a Comment

Your email address will not be published.

%d bloggers like this: