ইউক্রেন ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন ৫ লক্ষ নাগরিক

ইউক্রেন ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন ৫ লক্ষ নাগরিক

ইউক্রেন ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন ৫ লক্ষ নাগরিক   : রাশিয়া গত বৃহস্পতিবার ইউক্রেনে হামলা করে । একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েই চলেছে। রোজ প্রাণহানি বেড়েই চলেছে। মারা গিয়েছেন অনেক সাধারণ মানুষ। এই যুদ্ধ আবহে ইউক্রেন ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন বহু মানুষ। সংখ্যাটা পাঁচ লক্ষ। আর দেশে থেকেও ঘরছাড়া এক লক্ষ ৬০ হাজার জন। এই তথ্য দিলেন রাষ্ট্রসঙ্ঘের মানবাধিকার সংক্রান্ত বিষয়ক সেক্রেটারি জেনারেল মার্টিন গ্রিফিথ

সোমবার রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে এই তথ্য দিয়েছেন গ্রিফিথ। তাঁর কথায়, রাষ্ট্রসঙ্ঘের উদ্বাস্তু সংস্থা যে তথ্য দিয়েছে, তাতে জানা গিয়েছে পাঁচ লক্ষ মানুষ ইউক্রেনের সীমান্ত পেরিয়ে গিয়েছেন। বেশিরভাগই আশ্রয় নিয়েছেন পোল্যান্ডে। বাকিরা হাঙ্গেরি, স্লোভাক, রোমানিয়ায় আশ্রয় নিয়েছেন।

যাঁরা দেশ ছাড়েননি, তাঁরা ঘরছাড়া। আশ্রয় নিয়েছেন বাঙ্কারে। এই সংখ্যাটা এক লক্ষ ৬০ হাজার। রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে জানানো হয়েছে। তবে এই সংখ্যাটা প্রতি ঘণ্টায় লাফিয়ে বাড়ছে। ইউক্রেনের দাবি, রাশিয়ার হামলায় এখনও পর্যন্ত সাড়ে তিনশো সাধারণ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। যার মধ্যে ১৪ জন শিশু। ৭০ জন ইউক্রেন সেনাও হত হয়েছে।

রাষ্ট্রসঙ্ঘ সোমবার জানিয়েছিল, ইতিমধ্যে রুশ হামলায় ইউক্রেনে প্রায় দেড়শো জন সাধারণ নাগরিক মারা গিয়েছেন। তাঁদের মধ্যে রয়েছে সাতটি শিশুও। হাজার হাজার মানুষ দেশ ছেড়ে পালাচ্ছেন। এর মধ্যে পোল্যান্ড আশ্রয় নিয়েছেন চার লক্ষ জন। বাকিরা হাঙ্গেরি, রোমানিয়া, স্লোভাকিয়া, মলডোভায় আশ্রয় নিয়েছেন। পোপ ফ্রান্সিস ইউক্রেনবাসীকে আশ্রয় দেওয়ার জন্য আশপাশের দেশগুলোকে সীমান্ত খুলে দেওয়ার অনুরোধ করেছেন।

রুশ হামলার নিন্দায় সরব গোটা দুনিয়া। খোদ রাশিয়াতেই এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে আটক পাঁচ হাজার জন। ফেসবুকের পর গুগলও জানিয়ে দিয়েছে, তাদের প্লাটফর্ম থেকে টাকা রোজগার করতে পারবে না কোনও রুশ সংস্থা। ইউক্রেনে নেট পরিষেবা ব্যহত করার চেষ্টা করছে রাশিয়া। সেই পরিষেবা অব্যাহত রাখার চেষ্টা করছেন এলন মাস্ক।

About Post Author

Leave a Comment

Your email address will not be published.

%d bloggers like this: