ফেনী জেলার সেহরি_ইফতারে

ফেনী জেলার সেহরি_ইফতারের সময়সূচী – রমজান ২০২২

ফেনী জেলার সেহরি_ইফতারের সময়সূচী – রমজান ২০২২: আজ শুরু হল রমজান মাস, তাই সবাইকে মাহে রমজানের শুভেচ্ছা। সকলেই সেহরি ও ইফতারের সঠিক সময় জেনে রোজা পালন করতে চায়। সেহরী ও ইফতারের সঠিক সময় সকলেরই জানা উচিত। কারণ সেহরি খাওয়ার মাধ্যমে রোজা রাখা হয় এবং ইফতার খাওয়ার মাধ্যমে রোজা শেষ করা হয়। তাই সঠিক সময় যেনে নেওয়া সকলেরই জরুরী তাই আজকে ফেনী জেলার বাসিন্দাদের জন্য রমজানের সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি তুলে ধরা হয়েছে।

ফেনী জেলার রোজার সময়সূচী ২০২২

চট্টগ্রাম বিভাগের একটি জেলার নাম হচ্ছে ফেনী। বাংলাদেশ ইসলামী ফাউন্ডেশন থেকে ইতিমধ্যে মধ্যে ফেনী জেলার সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি প্রকাশ করেছে। প্রথম রোজা পালন করা হবে ৩/৪/২০২২। শনিবার সারাদিন পার করে ঐই রাতে সকল মুসলমান সেহরি খাবে ও তারাবি নামাজ পড়বে। ফেনী জেলা বাসীদে জন্য আজকে এই পোস্টে রমজানের সময়সূচী তুলে ধরা হয়েছে।

ফেনী জেলার রমজানের সময়সূচী ২০২২

রোজা রাখার জন্য প্রত্যেক দিনের সেহরি ও ইফতারের সময় জেনে নেওয়াটা আমাদের সকলেরই জরুরী। আমরা এই পোস্টে ফেনী জেলা বাসীদে জন্য রমজান মাসের রোজার সময়সূচি তুলে ধরেছি।

 

কুমিল্লা জেলার সেহরি_ইফতারের সময়সূচী – রমজান ২০২২

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের রাকআত সংখ্যা ও পড়ার নিয়ম

রোজার নিয়ত সাহরি ইফতারের-দোয়া

 

ফেনী জেলার সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি 2022

ইসলামের পাঁচটি স্তম্ভ রয়েছে এর মধ্যে হচ্ছে রোজা পালন করা। রোজা আল্লাহ তাআলা ফরজ করে দিয়েছেন সকল মুসলমানদের জন্য। তাই আমাদের প্রত্যেকেরই কর্তব্য ৩০ রোজা সঠিক নিয়মে পালন করা। ইসলাম ধর্মের পাঁচটি স্তম্ভ রয়েছে। এই পাঁচটি স্তম্ভ আল্লাহ তা’আলা সকল মুসলিমদের জন্য ফরজ করে দিয়েছেন। এই পাঁচটি স্তম্ভ নিচে দেয়া হয়েছে।

১। কালেমা ২। নামাজ ৩। রোজা ৪। হজ ও ৫। যাকাত

এই পাঁচটি বিষয়ের উপর দৃঢ় স্থাপন করা প্রত্যেক মুসলমানদের জন্য ফরজ। কালেমা, নামাজ, রোজা, এই তিনটির উপর আমল করা ফরজ এবং হজ, যাকাত, সামর্থ্য অনুযায়ী আদায় করা ফরজ বা অবশ্যই পালনীয় কাজ। এই পোস্ট থেকে আপনারা জানতে পারবেন ফেনী জেলার আজকের শেষ সময় ও ইফতারের শেষ সময়।

 

রমজানএপ্রিল/মে বারসাহরীর সতর্কতামূলক
শেষ সময়
ফজরের ওয়াক্ত
শুরু
ইফতারের
সময়
রহমতের ১০ দিন
০১০৩ এপ্রিলরবি৪:২৫ am৪:৩১ am৬:১৫ pm
০২০৪ এপ্রিলসোম৪:২৪ am৪:৩০ am৬:১৫ pm
০৩০৫ এপ্রিলমঙ্গল৪:২২ am৪:২৮ am৬:১৬ pm
০৪০৬ এপ্রিলবুধ৪:২২ am৪:২৮ am৬:১৬ pm
০৫০৭ এপ্রিলবৃহস্পতি৪:২১ am৪:২৭ am৬:১৭ pm
০৬০৮ এপ্রিলশুক্র৪:২০ am৪:২৬ am৬:১৭ pm
০৭০৯ এপ্রিলশনি৪:১৯ am৪:২৫ am৬:১৭ pm
০৮১০ এপ্রিলরবি৪:১৮ am৪:২৪ am৬:১৮ pm
০৯১১ এপ্রিলসোম৪:১৭ am৪:২৩ am৬:১৮ pm
১০১২ এপ্রিলমঙ্গল৪:১৬ am৪:২২ am৬:১৯ pm
মাগফিরাতের ১০ দিন
১১১৩ এপ্রিলবুধ৪:১৫ am৪:২১ am৬:১৯ pm
১২১৪ এপ্রিলবৃহস্পতি৪:১৩ am৪:১৯ am৬:১৯ pm
১৩১৫ এপ্রিলশুক্র৪:১২ am৪:১৮ am৬:২০ pm
১৪১৬ এপ্রিলশনি৪:১১ am৪:১৭ am৬:২০ pm
১৫১৭ এপ্রিলরবি৪:১০ am৪:১৬ am৬:২০ pm
১৬১৮ এপ্রিলসোম৪:০৯ am৪:১৫ am৬:২১ pm
১৭১৯ এপ্রিলমঙ্গল৪:০৮ am৪:১৪ am৬:২১ pm
১৮২০ এপ্রিলবুধ৪:০৭ am৪:১৩ am৬:২২ pm
১৯২১ এপ্রিলবৃহস্পতি৪:০৬ am৪:১২ am৬:২২ pm
২০২২ এপ্রিলশুক্র৪:০৫ am৪:১১ am৬:২৩ pm
নাজাতের ১০ দিন
২১২৩ এপ্রিলশনি৪:০৪ am৪:১০ am৬:২৩ pm
২২২৪ এপ্রিলরবি৪:০৩ am৪:০৯ am৬:২৪ pm
২৩২৫ এপ্রিলসোম৪:০৩ am৪:০৯ am৬:২৪ pm
২৪২৬ এপ্রিলমঙ্গল৪:০২ am৪:০৮ am৬:২৪ pm
২৫২৭ এপ্রিলবুধ৪:০১ am৪:০৭ am৬:২৪ pm
২৬২৮ এপ্রিলবৃহস্পতি৪:০০ am৪:০৬ am৬:২৪ pm
২৭২৯ এপ্রিলশুক্র৩:৫৯ am৪:০৫ am৬:২৫ pm
২৮৩০ এপ্রিলশনি৩:৫৮ am৪:০৪ am৬:২৫ pm
২৯০১ মেরবি৩:৫৭ am৪:০৩ am৬:২৬ pm
৩০০২ মেসোম৩:৫৬ am৪:০২ am৬:২৬ pm

 

রোজার নিয়ত ও ইফতারের দোয়া

রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেন, যে ব্যক্তি ঈমানের সঙ্গে সওয়াবের আশায় রমজানের রোজা রাখে, (অন্য বর্ণনায়) ঈমানের সঙ্গে সওয়াবের আশায় তারাবির নামাজ পড়ে, তার অতীতের সকল গুনাহ মাফ করে দেয়া হয়। (বুখারি শরিফ: হাদিস নং ১৯০১)

রোজার নিয়ত : আরবীতে উচ্চারণ

نَوَيْتُ اَنْ اُصُوْمَ غَدًا مِّنْ شَهْرِ رَمْضَانَ الْمُبَارَكِ فَرْضَا لَكَ يَا اللهُ فَتَقَبَّل مِنِّى اِنَّكَ اَنْتَ السَّمِيْعُ الْعَلِيْم

রোজার নিয়ত : বাংলা উচ্চারণ

রমজানের রোজার জন্য সুবহে সাদিকের পূর্বে মনে মনে এই নিয়ত করবেন,
নাওয়াইতু আন আছুম্মা গাদাম মিন শাহরি রমাজানাল মুবারাকি ফারদাল্লাকা, ইয়া আল্লাহু ফাতাকাব্বাল মিন্নি ইন্নিকা আনতাস সামিউল আলিম।

বাংলায় অর্থ :

হে আল্লাহ! আমি আগামীকাল পবিত্র রমজানের তোমার পক্ষ থেকে নির্ধারিত ফরজ রোজা রাখার ইচ্ছা পোষণ (নিয়্যত) করলাম। অতএব তুমি আমার পক্ষ থেকে (আমার রোযা তথা পানাহার থেকে বিরত থাকাকে) কবুল কর, নিশ্চয়ই তুমি সর্বশ্রোতা ও সর্বজ্ঞানী।

ইফতারের কিছুক্ষণ পূর্বে ‘ইয়া ওয়াসিয়াল মাগফিরাতি, ইগফিরলী’ এ দোয়াটি বেশী বেশী পড়তে হবে। অর্থঃ হে মহান ক্ষমা দানকারী! আমাকে ক্ষমা করুন। (শু‘আবুল ঈমান: ৩/৪০৭)

ইফতারের দোয়া: আরবিতে উচ্চারণ

اَللَّهُمَّ لَكَ صُمْتُ وَ عَلَى رِزْقِكَ وَ اَفْطَرْتُ

ইফতারের দোয়া : বাংলা উচ্চারণ

আল্লাহুম্মা লাকা সুমতু, ওয়া আ’লা রিযক্বিকা আফত্বারতু।

বাংলা অর্থ :
হে আল্লাহ! আমি তোমারই জন্যে রোজা রেখেছি এবং তোমারই দেওয়া রিজিক দ্বারা ইফতার করছি।

সেহরির দোয়া: আরবিতে উচ্চারণ

نَوَيْتُ اَنْ اُصُوْمَ غَدًا مِّنْ شَهْرِ رَمْضَانَ الْمُبَارَكِ فَرْضَا لَكَ يَا اللهُ فَتَقَبَّل مِنِّى اِنَّكَ اَنْتَ السَّمِيْعُ الْعَلِيْم

বাংলায় উচ্চারণ:
নাওয়াইতু আন আছুম্মা গাদাম মিন্ শাহরি রমাজানাল মুবারাকি ফারদাল্লাকা, ইয়া আল্লাহু ফাতাকাব্বাল মিন্নি ইন্নিকা আনতাস্ সামিউল আলিম।

বাংলা অর্থ:
হে আল্লাহ! আমি আগামীকাল পবিত্র মাহে রমজানের নির্ধারিত ফরজ রোজা রাখার নিয়ত করলাম। অতএব তুমি আমার রোযা তথা পানাহার থেকে বিরত থাকাকে কবুল কর, নিশ্চয়ই তুমি সর্বশ্রোতা ও সর্বজ্ঞানী।

উপরে ফেনী জেলা বাসীদের জন্য রমজানের মাসের ৩০ টি রোজা সময়সূচী দেয়া হয়েছে। আশা করি আপনারা এই সময় অনুযায়ী রোজা রাখতে পারবেন। আপনারা চাইলে অন্যদেরকে এই পোস্টটি শেয়ার করে রমজান মাসের রোজার সময়সূচি জানাতে পারবেন।

About Post Author

Leave a Comment

Your email address will not be published.

%d bloggers like this: