আন্তর্জাতিক

বাসি খাবার দেওয়ায় না খেয়েই মাঠ ছাড়েন কোহলিরা

Spread the love

বাসি খাবার দেওয়ায় না খেয়েই মাঠ ছাড়েন কোহলিরা

মেলবোর্নে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে স্মরণীয় জয়ের পর ভারতীয় ক্রিকেট দল এখন সিডনিতে। আগামীকাল সুপার টুয়েলভের ম্যাচে ভারতের প্রতিপক্ষ নেদারল্যান্ডস। এই ম্যাচের জন্য এখন প্রস্তুতি নিচ্ছেন রোহিত-কোহলিরা।

তবে সিডনিতে অনুশীলনের পর বিরূপ অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। অনুশীলনের পর দুপুরের খাবার খাওয়ার সময় সমস্যা হয়েছে। এটা ছিল ঠান্ডা খাবার, তাতে পরিবেশন করা খাবার পছন্দ করেননি ক্রিকেটাররা। প্রতিবাদে না খেয়েই মাঠ ছেড়েছেন তারা।

অনুশীলনের পরে ভারতীয় দলকে যে খাবার পরিবেশন করা হয়েছিল তাতে স্যান্ডউইচ এবং ফল ছিল, যা শীর্ষ খেলোয়াড়দের পছন্দ ছিল না। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) অনানুষ্ঠানিকভাবে আইসিসিকে খাবার নিয়ে তাদের অসন্তোষের কথা জানিয়েছে।

খাবারের সমস্যা ব্যাখ্যা করে, বিসিসিআইয়ের একটি সূত্র সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে জানিয়েছে, “ভারতীয় দলকে যে খাবার পরিবেশন করা হয়েছিল তা ভাল ছিল না। এই দিনে খেলোয়াড়দের শুধুমাত্র স্যান্ডউইচ দেওয়া হয়েছিল। এবং সিডনিতে অনুশীলনের পরে পরিবেশিত খাবারটি ঠান্ডা ছিল এবং ভাল ছিল না।

অনুশীলনে ঘাম ঝরিয়ে স্বাভাবিকভাবেই এই খাবার পছন্দ করেননি ভারতীয় ক্রিকেটাররা। পরে তারা না খেয়ে মাঠ ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেন। যদিও বিসিসিআই এটাকে খাবার ছাড়া যাওয়া বয়কট বলতে চায় না।

ক্রিকেট বোর্ডের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, এটা বয়কটের মতো কিছু নয়। কয়েকজন খেলোয়াড় ফল ও ফালাফেল নেন। কিন্তু সবাই লাঞ্চ করতে চেয়েছিল। তাই তারা হোটেলে ফিরে গিয়ে খেয়ে নিল।

দ্বিপাক্ষিক সিরিজে সাধারণত আয়োজক দেশগুলোই খাদ্য সরবরাহ করে থাকে। তবে আইসিসি টুর্নামেন্টের দায়িত্ব আইসিসির কাঁধে। বিশ্বকাপের মতো আয়োজন

এছাড়াও প্রদত্ত খাবারে পুষ্টির ঘাটতি ছিল তা উল্লেখ করে কর্মকর্তা যোগ করেছেন, ‘আপনি দুই ঘন্টা অনুশীলনের পরে অ্যাভোকাডো, টমেটো এবং শসা দিয়ে একটি ঠান্ডা স্যান্ডউইচ দিতে পারবেন না। এটা যথেষ্ট পুষ্টিকর নয়।’

বিব্রতকর ঘটনার পর আইসিসি জানিয়েছে, তারা বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। বাসি খাবার দেওয়ায় না খেয়েই মাঠ ছাড়েন কোহলিরা বাসি খাবার দেওয়ায় না খেয়েই মাঠ ছাড়েন কোহলিরা বাসি খাবার দেওয়ায় না খেয়েই মাঠ ছাড়েন কোহলিরা

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button